বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

English

মমতার মাস্টারস্ট্রোক: তিস্তার বদলে অন্য নদীর জলের প্রস্তাব

প্রকাশিত
এপ্রিল ৯, ২০১৭
news-image

তিস্তার জল নিয়ে জটের মধ্যেই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দু’দেশের মধ্যে বয়ে চলা অন্যান্য নদীর জলবণ্টনের বিষয়টি ভেবে দেখতে পরামর্শ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই প্রস্তাব তিনি দিয়েছেন মোদী সরকারকেও। মমতা বলেছেন, আমরা চাই বাংলাদেশ জল পাক। বিকল্প প্রস্তাব দুই সরকারই ভেবে দেখুক।

মমতার এই প্রস্তাব অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ, শনিবারই শেখ হাসিনার সামনে তিস্তা জল বণ্টন চুক্তি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বল কার্যত পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোর্টে ঠেলে দেন মোদী। কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, একদিকে যেমন তিস্তা চুক্তিতে মমতার গুরুত্ব বুঝিয়ে দিলেন মোদী, তেমনই তাঁর উপর ঘুরিয়ে চাপও তৈরি করলেন! বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন, তিস্তার জল বাংলাদেশকে দিতে তিনি রাজি, এখন শুধু দরকার মমতার ‘হ্যাঁ’!

কিন্তু, সত্যিই কি তিস্তার জল ভারতের পক্ষে বাংলাদেশকে দেওয়া সম্ভব? বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, সুখা মরশুমে তিস্তার জল শুকিয়ে যায়, তাই কোনও পরিস্থিতিতেই বাংলাদেশকে জল দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ তাতে উত্তরবঙ্গের একাধিক জেলার চাষীরা মহাসঙ্কটে পড়বেন।

পর্যবেক্ষকদের একাংশের ধারণা, মোদী-মমতা দু’জনেই হয়ত জানেন, তিস্তার জল বাংলাদেশকে দেওয়া অত্যন্ত কঠিন। তাও কূটনৈতিক স্বার্থে তিস্তা নিয়ে আলোচনা চালিয়েই যেতে হয়। যদিও, শেখ হাসিনা এখনও তিস্তা চুক্তি নিয়ে আশাবাদী।

এই প্রেক্ষাপটে এক বিকল্প প্রস্তাব দিলেন মমতা। বাংলাদেশের পক্ষে কি এই প্রস্তাব মেনে নেওয়া সম্ভব? হাসিনা কি তিস্তার পরিবর্তে অন্য কোনও নদীর জল পেলে, দেশবাসীকে সন্তুষ্ট করতে পারবেন? উত্তর মিলবে ভবিষ্যতে।