বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

English

রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেল জিএসটি বিল

প্রকাশিত
এপ্রিল ৭, ২০১৭
news-image

জিএসটি বিল নিয়ে দীর্ঘ দিনের আলাপ-আলোচনা এবার শে৷ হতে চলল ৷ মার্চ মাসের ২৯ তারিখে লোকসভায় এই বিল পেশ হওয়ার পর, তা যায় রাজ্যসভায় ৷ বৃহস্পতিবার রাজ্যসভাতেও পাশ হয়ে গেল জিএসটি বিল ৷ এবার জিএসটির সংশোধনের জন্য ফের আনা হবে লোকসভাতে৷

বহু বিতর্কের পর অবশেষে অর্থবিলের আকারে লোকসভায় পেশ হল জিএসটি। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি লোকসভায় বিলটি পেশ করেন।

জিএসটি বিলের তিনটি সংশোধনীতে ছাড়পত্র দেয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। জুলাই মাস থেকেই দেশে জিএসটি চালু করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার। জিএসটি বিলটি লোকসভায় পেশের সময় তুমুল বিরোধিতা করে তৃণমূল কংগ্রেস, কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা।

লোকসভায় তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায়ের অভিযোগ, সময় না দিয়ে জোর করে বিলটি পেশ করেছে করেছে সরকার। এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিল পাসের ক্ষেত্রে আরও সময় নেওয়া উচিত।

শেষমেশ হয়তো বাস্তবরূপ পেতে চলেছে Goods and service tax ৷ বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি জানান, জিএসটি বিল মন্ত্রী পরিষদ ও পার্লামেন্টের অনুমোদনের জন্য একেবারেই প্রস্তুত ৷ অরুণ জেটলির কথায়, চলতি বছরের জুলাই মাস থেকে কার্যকর হতে পারে এই বিল ৷

কেন্দ্র ও রাজ্য তরজার প্রধান বিষয়টি হল, দেড় কোটির বেশি রাজস্ব ভাগ ৷ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি আগে জানিয়ে ছিলেন, এই ক্যাটোগরির ৯০ শতাংশ পরিচালন করবে রাজ্য, বাকিটুকু কেন্দ্র ৷ এই রাজস্ব আয় কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে ৫০:৫০ ভাগে বন্টিত হবে ৷

দেশজুড়ে অভিন্ন করব্যবস্থা চালুর লক্ষ্যে তৈরি হয় Goods and service tax ৷ আলাদা আলাদা একগুচ্ছ কর নয়, সব পণ্য কিনতে ও পরিষেবা পেতে দিতে হবে একটাই কর।

পয়লা এপ্রিল থেকে না হলেও, কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যের সমস্ত সমস্যা মিটিয়ে ১ জুলাই থেকে জিএসটি চালুর সম্ভাবনার কথা জানিয়ে রাখলেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি ৷ তবে তার আগে কাটাতে হবে জট ৷

ক্রেতাকে একটি পণ্য কিনতে বা পরিষেবা নিতে বর্তমানে একাধিক ট্যাক্স বা কর দিতে হয়। পরিষেবা কর, উৎপাদন শুল্কের মতো কিছু কর নেয় কেন্দ্র। রাজ্যগুলি নেয় সেলস ট্যাক্স, লাক্সারি ট্যাক্স, ভ্যাটের মতো কর। আলাদাভাবে না নিয়ে, এক ছাতার তলায় সব করকে আনতেই গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স বা পণ্য ও পরিষেবা করের জন্ম। অর্থাৎ, ক্রেতা একটি পণ্য কিনলে বা পরিষেবা নিতে চাইলে যে একটিমাত্র কর দেবেন, সেটাই জিএসটি।