শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

English

রাজ্যের কৃষকদের কৃষিঋণ মুকুব করার নির্দেশ দিল মাদ্রাজ হাইকোর্ট

প্রকাশিত
এপ্রিল ৫, ২০১৭
news-image

গোটা রাজ্যে খরা পরিস্থিতি। ঠিকমতো চাষ আবাদ করতে পারছেন না কৃষকরা। আর তাই তামিলনাড়ু সরকারকে রাজ্যের সমস্ত কৃষকদের ঋণ মকুবের নির্দেশ দিল মাদ্রাজ হাইকোর্ট। কৃষক অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে করা পিটিশনের শুনানিতেই মঙ্গলবার এই রায় দিয়েছে আদালত। পাশাপাশি ব্যাঙ্কগুলিও যেন ঋণ শোধের জন্য কৃষকদের চাপ না দেয় সেই নির্দেশও দিয়েছে।

রায়ের পর এস নাগামুথু এবং এম ভি মুরলীধরনের বেঞ্চ জানিয়েছে, ‘আমরা জানি রাজ্যের আর্থিক অবস্থাও খারাপ। মুখ্যসচিব চিঠিতে সেকথা জানিয়েছেন। রাজ্য সরকারের কাঁধে এখনই ৫,৭৮০ কোটি টাকার বোঝা রয়েছে। এরপর যুক্ত হবে আরও ১৯৮০.৩৩ কোটি টাকা।’ পাশাপাশি খরা কবলিত রাজ্যে যেভাবে কৃষকরা আত্মহত্যা করছে, সেই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে হাইকোর্ট। কেন্দ্রকেও সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসতে বলে আদালত। এই কঠিন সময়ে কেন্দ্র কীভাবে চুপ করে থাকতে পারে?

গত ২০ দিন ধরে রাজধানী দিল্লির যন্তর-মন্তরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন চাষিরা। দাবি ছিল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কে কৃষকদের সমস্ত ঋণ মকুব করে দিতে হবে। এর আগে গত বছর ২৮ জুন ৫ একর পর্যন্ত জমি রয়েছে এরকম চাষিদেরই কেবল ঋণ মকুবের কথা জানিয়েছিল। কিন্তু এদিন আদালত নিজেদের রায়ে বলে, সমস্ত কৃষকদেরই এই সুবিধা দিতে হবে। অন্যরা কেন এই সুবিধা পাবে না। আর সেজন্যই পালানিস্বামী সরকারকে সবার ঋণ মকুব করার নির্দেশ দিয়েছে। পাশাপাশি এই নির্দেশ কার্যকর করার জন্য তিন মাসের সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছে।

মাদ্রাজ হাইকোর্ট সরকারি আধিকারিকদের জানিয়েছে, বর্তমানে রাজ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণ জল নেই, কৃষকরা কাবেরীর জলও পাচ্ছেন না, এছাড়া বহু জায়গায় ফসলও নষ্ট হয়েছে। তাই তাঁদের ওপর ঋণশোধের জন্য যেন কোনওরকম চাপও না দেওয়া হয়।